ফরচুন গ্রুপের চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তারের দাবি; শ্রমিকদের আন্দোলনে বরিশালে বাস ও লঞ্চ চলাচল বন্ধ

ফরচুন গ্রুপের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমানসহ তিনজনকে গ্রেপ্তারের দাবিতে বাস ও লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে আন্দোলন করছেন বাস শ্রমিকরা। তাদের গ্রেপ্তার না করা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন তারা। এরআগে থানা ঘেরাও করে মামলা নিতে বাধ্য করা হয় পুলিশকে।  আন্দোলনকারী এই শ্রমিকদের পিছনে ফরচুন এর মালিক বিরোধী প্রভাবশালী এক নেতার ইন্ধন রয়েছে এমন কথা এখন নগরবাসীর মুখে মুখে। তাই পুলিশও রয়েছে বিপাকে।

ব‌রিশাল জেলা বাস মা‌লিক গ্রু‌পের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কি‌শোর কুমার দে জানান, বুধবার দুপুর দুইটার দিকে নগরীর বি‌সিক রো‌ডের ফরচুন গ্রুপ নামের ফ্যাক্ট‌রির লোকজন প‌রিবহন শ্র‌মিক সোহাগ হাওলাদার‌কে আট‌কে রেখে মারধর ক‌রে পু‌লিশের হা‌তে তু‌লে দেয়। খবর পে‌য়ে শ্র‌মিকরা থানা ঘেরাও কর‌লে পু‌লিশ সোহাগ‌কে ছে‌ড়ে দেয় ।  কিন্তু শ্র‌মিক‌ মারধরের প্র‌তিবা‌দে থানায় মামলা দায়ে‌রের আবেদন করলে পু‌লিশ মামলা নি‌তে চায়‌নি।

এই মামলা নেওয়ার দাবিতে বুধবার,২০ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাতটা থেকে মালিক শ্রমিকরা এক যোগে বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়। একইসঙ্গে সড়ক অবরোধ করে তারা। এছাড়া মামলার আসামিদের গ্রেফতার না করা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ চলবে বলে জানিয়েছেন বাস মালিক ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দ।

এ‌দি‌কে টেস্পু, মা‌হিন্দ্রা ও থ্রি হুইলার মা‌লিক শ্র‌মিক স‌মি‌তির সভাপ‌তি কামাল হো‌সেন মোল্লা লিটন জানান, মামলা না নেওয়া এবং মামলার আসামীদের গ্রেফতার না করা পর্যন্ত সড়ক অব‌রোধ অব্যাহত থাক‌বে।

ফরচুন গ্রু‌পের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান দাবি ক‌রেছেন, তার এক নারী কর্মী‌কে উত্ত্যক্ত করেছিল সোহাগ নামের এক যুবক। তা‌কে আটক ক‌রে পু‌লি‌শে সোপর্দ করা হয়। ত‌বে মারধ‌র করা হয়নি।

ফরচুন চেয়ারম্যান

পু‌লিশ ক‌মিশনার  মো. শাহাবু‌দ্দিন খান জানান, এই ঘটনায় এক‌টি মামলা দা‌য়ের করা হ‌য়ে‌ছে। মামলায় ফরচুন গ্রু‌পের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমানসহ তিনজন‌কে আসামী করা হ‌য়ে‌ছে। তদন্ত ক‌রে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বাস চলাচল স্বাভা‌বিক করতে আলোচনা চলছে বলে জানান তিনি।

এদিকে শ্রমিকরা রাতে বরিশাল থেকে কোন লঞ্চও ছাড়তে দেয়নি।

বরিশাল নিউজ/ স্টাফ রিপোর্টার