সিনেমা হলে বাংলাদেশ-ভারত ফাইনাল

হলের সামনে সাদা পোস্টারে বাংলাদেশ-ভারত ফাইনাল ম্যাচ দেখানোর ঘোঘণা। ছবি: বাংলানিউজ

কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে গড়াচ্ছে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি নিদাহাস ট্রফির ফাইনাল ম্যাচ। বাংলাদেশ ও ভারতের এ ম্যাচ ঘিরে দেশজুড়ে ক্রিকেট উন্মাদনা চরমে। সেই উত্তেজনায় শামিল রাজধানীর পল্টনের সিনেমা হল ‘জোনাকি’ও। চলচ্চিত্রের পরিবর্তে তারা দেখাবে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যকার শিরোপা জেতার মহারণ।
খেলা নিয়ে এই উত্তেজনায় উদ্বেল দেখা যায় ‘জোনাকি’ সিনেমা হলের কর্তাব্যক্তিদের মাঝেও। রবিবার হলের সামনে টানিয়ে দেয়া হয় ে বাংলাদেশ-ভারত ফাইনাল ম্যাচ দেখানোর ঘোঘণর পোস্টার।
পোস্টারে লেখা রয়েছে, ‘খেলা, খেলা, খেলা। জোনাকি সিনেমা হলের রূপালি পর্দায় আজ সন্ধ্যা সাত ঘটিকায় বাংলাদেশের দামাল ছেলে বনাম ভারত। উক্ত খেলা উপভোগ করার জন্য ক্রীড়ামতি ভাই-বোনদের আমন্ত্রণ।’
আর খেলা দেখার জন্য ডি/সি ক্লাসে প্রবেশমূল্য রাখা হচ্ছে ৭০ টাকা এবং আর/এস ক্লাসের টিকিটমূল্য ধরা হয়েছে ৬০ টাকা।
হলের প্রধান ফটক অল্প একটু খুলে খেলার টিকিট বিক্রি করছিলেন শাহাবুদ্দিন। বলছিলেন, ঢালিউডের সিনেমা ‘ঢাকা অ্যাটাক’ বন্ধ করে খেলা চালাচ্ছেন তারা; ‘আজকে ঢাকা অ্যাটাক অফ, আজ শুধু ইন্ডিয়া অ্যাটাক।’
কথার মধ্যেই তার হাঁকডাক, খেলার টিকিট ফুরাইয়া গেল। আগে আসলে আগে পাবেন, না পাইলে পস্তাইবেন।
তিনি জানান, খেলা ঘোষণা দিলেই সিনেমার চেয়েও কয়েকগুণ বেশি দর্শক হয়। অনেকেই এসে টিকিট কিনছেন।
সিনেমা হলে খেলা দেখার জন্য ৭০ টাকা দিয়ে টিকিট কিনেছেন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শাহেদ। তিনি বলেন, এখানে খেলা দেখার কোনো প্ল্যান ছিল না। এসে দেখলাম খেলা দেখানো হবে, তাই টিকিট কিনে নিলাম।
‘গ্যালারির মতো অনেক মানুষ বসে একসঙ্গে হই-হুল্লোড় করে খেলা দেখা যাবে। বেশ মজা হবে।’
শাহেদ বলেন, শ্রীলঙ্কার সঙ্গে ম্যাচে বাংলাদেশ যে দুর্দান্ত ক্রিকেট উপহার দিয়েছে তাতে আশা আরও বেড়ে গেছে। আশা রাখছি এই ট্রফিটা আমাদেরই থাকছে।
চলমান এ ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের উড়ন্ত পারফরম্যান্স আশার পারদ বাড়িয়ে দিয়েছে ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে। স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার সঙ্গেই দু’ দু’টি ‘শ্বাসরূদ্ধকর’ জয়ের পর এখন ফাইনালে ভারতবধের প্রতীক্ষা কোটি বাঙালির।
-সৌজন্যে বাংলানিউজটোয়েন্টি