হাটহাজারী মাদ্রাসার দায়িত্বে বাবুনগরী,মজলিসে আমেলা গঠন

আল্লামা আহমদ শফির ইন্তেকালের একদিন পর শনিবার হাটহাজারী মাদ্রাসার মজলিসে সুরার বৈঠকে মাদ্রাসা পরিচালনার জন্য তিন সদস্য বিশিষ্ট মজলিসে আমেলা গঠন করা হয়েছে।

মজলিসে আমেলার সদস্যরা হলেন মুফতি আবদুস সালাম, মাওলানা শেখ আহমদ সাহেব ও মাওলানা ইয়াহইয়া। সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে তিন জনে মিলেই সিদ্ধান্ত নিবেন, একজন বা দুইজনের কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণযোগ্য হবে না ।

হাটহাজারী মাদ্রাসার দায়িত্ব পেলেন আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী

এই সভায় সর্বসম্মতিক্রমে মাদ্রাসাটির সিনিয়র শিক্ষক ও হেফাজাতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীকে শাইখুল হাদীস ও নাযেমে তালিমাত বা শিক্ষা সচিব মনোনীত করা হয়েছে।

এছাড়া হেফাজাতে ইসলামের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী জানিয়েছেন, আহমদ শফীর মৃত্যুর পর হেফাজতে ইসলামের পরবর্তী আমির কে হবেন তা কাউন্সিলের মাধ্যমে নির্ধারণ করা হবে। হাটহাজারী মাদ্রাসার পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক আছে বলেও জানান তিনি।

জুনায়েদ বাবুনগরী বলেন, “আল্লামা শাহ আহমদ শফির মতো তো আর মানুষ পাওয়া যাবে না। আমার দায়িত্ব হলো এখন কাউন্সিল ডাকা। কাউন্সিল যে সিদ্ধান্ত নেবে ওটাই হবে।”

১৯৮৬ সালে হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালক পদে যোগ দেন আল্লামা শফী। এরপর পর টানা ৩৪ বছর ওই পদে ছিলেন তিনি।  তার নেতৃত্বেই ২০১০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় হেফাজতে ইসলাম।

শফীর বয়স হওয়ায় হাটহাজারী মাদ্রাসায় তার উত্তরসূরি নির্বাচন নিয়ে সম্প্রতি বিরোধ দেখা দেয়। মাদ্রাসার নায়েবে মুহতামিম বা সহকারী পরিচালকের পদে থাকা হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় মহাসচিব জুনাইদ বাবুনগরী ছিলেন শীর্ষ পদের অন্যতম দাবিদার। কিন্তু শফীর ছেলে আনাস মাদানির সঙ্গে তার দ্বন্দ্বে হাটহাজারী মাদ্রাসায় অস্থিরতা দেখা দেয়।

এর জেরে গত ১৭ জুন সহকারী পরিচালকের পদ হারান বাবুনগরী। শফী সমর্থকরা সেই দফা টিকে গেলেও তার রেশ থেকে যায়।

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে প্রায় ছয় মাস বন্ধ থাকার পর মাদ্রাসা খোলা হলে বুধবার আকস্মিকভাবে কয়েকশ শিক্ষার্থী বিক্ষোভ শুরু করে। শফীর অব্যাহতি এবং তার ছেলে মাদ্রাসার সহকারী পরিচালক আনাস মাদানির বহিষ্কার দাবিতে বিভিন্ন কক্ষে ভাংচুর করেন তারা।

এরপর মাদ্রাসার শূরা কমিটি বৈঠকে আনাস মাদানিকে মাদ্রাসার সহকারী পরিচালক (শিক্ষা) সহ সব পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। আর আহমদ শফী পদত্যাগ করার পর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। পরদিন মারা যান তিনি।

বরিশাল নিউজ / ডেস্ক নিউজ