যুব গেমসের ২য় আসর : বিভাগীয় পর্যায়ে খেলা শুরু কাল

যুব গেমসের বিভাগীয় পর্যায়ের খেলা সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে ।
জেলা পর্যায়ের খেলা শেষে বাছাইকৃত তিন হাজার ৪৭৩ জন প্রতিযোগী নিয়ে কাল বাংলাদেশ যুব গেমসের বিভাগীয় পর্যায়ের খেলা শুরু হচ্ছে। জেলা পর্যায়ে অংশ নেয়া মোট ২৩ হাজার ২১০ জন প্রতিযোগীর মধ্যে বাছাইকৃত প্রতিযোগীদের বয়স যাচাই করা হয়েছে বলে আজ সংবাদ সম্মেলনে জানান বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের উপ-মহাসচিব আশিকুর রহমান মিকু। সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন বিওএ মহাসিচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা, সহ-সভাপতি শেখ নশির আহমেদ ও উপমহাসচিব আসাদুজ্জামান কোহিনুর।
প্রতি ভেন্যুতে প্রথমবারের মত আয়োজিত এ আসরে প্রতিটি বিভাগে ২১টি করে ইভেন্টের খেলা হওয়ার কথা থাকলেও সেটা হচ্ছে না। আর্চারি, উশু, জুডো, বাস্কেটবল, হকি, শুটিং, তায়কোয়ান্দো- এই সাতটি ইভেন্টের খেলা মূল পর্বে হবে বলে জানান মিকু। কারণ বেশ কয়েকটি ইভেন্ট হয়ে পড়েছে নির্দিষ্ট কিছু এলাকাভিত্তিক। অনেক জেলাতেই এই ডিসিপ্লিনের দল বা খেলোয়াড় নেই। যেমন আর্চারি নড়াইল, বাগেরহাটে খেলা হয়। তাই যে ডিসিপ্লিনগুলোতে দল বা খেলোয়াড় কম তাদেরকে আমরা সরাসরি ঢাকায় মূল পর্বে খেলার সুযোগ দিয়েছি।
আশার কথাও শোনোলেন বিওএ মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা। চূড়ান্তভাবে বাছাই হওয়া অ্যাথলেটরা ঝরে পড়বে না বলেও সংবাদ সম্মেলনে আশা প্রকাশ করেন তিনি। যাদেরকে বাছাই করা হবে, তাদেরকে বিভিন্ন ফেডারেশনের মাধ্যমে দেশে ও দেশের বাইরে অনুশীলনের সুযোগ করে দেওয়া হবে। ভবিষ্যতে যুব গেমস ও বাংলাদেশ গেমস প্রতি দু’বছর অন্তর মাঠে গড়ানোর আশ্বাসও দেন তিনি।
এবারের যুব গেমসে ২০ জন খ্যাতনামা ক্রীড়া ব্যক্তিত্বকে শুভেচ্ছাদূত মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। বিভাগীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় ক্রীড়াবিদদের উৎসাহিত করার লক্ষ্যে তারা বিভিন্ন ভেন্যুতে যাবেন। পাশাপাশি বিভিন্ন ভেন্যুতে যাবেন বিওএ সভাপতি সেনা প্রধান জেনারেল আবু বেলাল মোহাম্মদ শফিউল হক সহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। সংবাদ সম্মেলনে অন্যতম শুভেচ্ছাদূত ওয়ান ডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার বিভিও বার্তা উপস্থাপন করা হয়।
গতবছরের শেষভাগে দেশের ৬৪ জেলায় একযোগে শুরু হয়েছিল প্রথমবারের মত আয়োজিত বাংলাদেশ যুব গেমস।