বরিশালে ৩৬০ হাজার শিশু খাবে ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল


 বরিশাল নিউজ।। বরিশাল সিটি কপোরেশনসহ জেলায় ৩ লাখ ৬০ হাজার ২৪৮ শিশুকে আগামী শনিবার, ১১ জানুয়ারি ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।
 এর মধ্যে বরিশাল জেলার ১০ উপজেলায় খাওয়ানো হবে তিন লাখ ১০ হাজার ৬৩৮ জনকে এবং সিটি এলাকায় ৪৯ হাজার ৬১০ জন শিশুকে।
 এ উপলক্ষে বুধবার ৮ জানুয়ারি বরিশাল জেলা সিভিল সার্জনের উদ্যোগে সংবাদ সন্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।


 সংবাদ সন্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ মাহামুদ হাসান। তিনি জানান, ১১ জানুয়ারি শনিবার জাতীয় ভিটামিন এ পৱাস ক্যাম্পেইন। ওই দিন বরিশাল জেলার ০৬ থেকে ৫৯ মাস বয়সী সকল শিশুকে ভিটামিন এ পৱাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে ০৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৩৩ হাজার ১০৫ জন শিশুকে নীল রঙের এক লাখ ওট ক্ষমতা সম্পন্ন ভিটামিন খাওয়ানো হবে। পাশাপাশি ১২ থেকে ৫৯ বয়সের ২ লাখ ৭৭ হাজার ৫৩৩ জন শিশুকে লাল রঙের ২ লাখ ওট ক্ষমতা সম্পন্ন ভিটামিন খাওয়ানো হবে।

 তিনি বলেন, ওই দিন বরিশালের ১০ উপজেলার ৮৫টি ইউনিয়নের ২৫৫টি ওয়ার্ডে দুই হাজার ২৫০টি টিকা দান কেন্দ্রের মাধ্যমে এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। বরিশাল সিভিল সার্জনের এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে সেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করবেন চার হাজার ১০০ জন কর্মী। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত টিকাদান কেন্দ্র খোলা থাকবে।

 সিভিল সার্জন বলেন, ইতোমধ্যে এ কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রচার প্রচারণা চালানো হচ্ছে। এর পাশাপাশি শুক্রবার জুম্মাবাদ সকল মসজিদে ইমামরা জেলাবাসীকে অবহিত করবেন। অপুষ্টিজনিত অন্ধত্ব থেকে শিশুকে রক্ষা করতে এই ভিটামিনের বিকল্প নেই বলে তিনি মন্তব্য করেন।
 এদিকে বরিশাল সিটি করপোরেশনের স্বাস’্য কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ ফয়সাল হাজবুন জানান, শনিবার ১১ জানুয়ারি বরিশাল সিটি কপোরেশনের আওতায় ২২০ টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ৪৯ হাজার ৬১০ জন শিশুকে এই ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এর মধ্যে এর মধ্যে ০৬ থেকে ১১ মাস বয়সী পাঁচ হাজার একশত জন শিশুকে নীল রঙের এক লাখ ওট ক্ষমতা সম্পূন্ন ভিটামিন খাওয়ানো হবে। একই সাথে ১২ থেকে ৫৯ বয়সের ৪৪ হাজার ৫১০ শিশুকে লাল রঙের দুই লাখ ওট ক্ষমতা সম্পূন্ন ভিটামিন খাওয়ানো হবে।

 ওই দিন সিটি কর্পোরেশনের স্বাস’্য বিভাগ, সদর হাসপাতাল, শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি ২৩ টি প্রতিষ্ঠানের পাঁচশত জন কর্মী শিশুদের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর কাজ করবেন।
 তিনি জানান, এবারেই প্রথম ক্যাম্পেইন কার্যক্রম অনলাইনে সুপারভিশন করা হবে। ভিটামিন এ ক্যাপসুল শিশুর জন্য সম্পূর্ণ নিরাপদ, তবে ভরা পেটে খাওয়া ভালো, আর যদি কোন শিশু গত ৪ মাসের মধ্যে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খেয়ে থাকে তাহলে তাকে এখন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো যাবে না।
 বরিশাল নিউজ/স্টাফ রিপোর্টার