দল দাসে পরিণত হয়েছে ছাত্ররা -সাকি

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গণসংহতি আন্দোলনের সমাবেশ-বরিশাল নিউজ

বরিশাল নিউজ।। গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী জোনায়েদ সাকি বলেছেন, দেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের গণতান্ত্রিক পরিবেশ ধ্বংস করে শিক্ষার্থীদের দল দাসে পরিণত করা হয়েছে। আবাসিক হলগুলোতে টর্চার সেলের মাধ্যমে তারাই ছাত্রদের নিয়ন্ত্রণ করছে। গুম,খুন, ধর্ষণ আর উন্নয়নের নামে জনগণের ট্যাক্সের টাকা লোপাট আজ স্বাভাবিক নিয়মে পরিণত হয়েছে। ছাত্ররাজনীতির প্রশ্নে সরকারের সমালোচনা করে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের বিভাগীয় সমন্বয় কমিটির আয়োজনে দুর্নীতি ও ধর্ষণ বিরোধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন জোনায়েদ সাকি।
বরিশাল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বৃহস্পতিবার ,৩১ অক্টোবর এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

আওয়ামী লীগ ও তার ছাত্র সংগঠনের সমালোচনা করে গণসংহতি আন্দোলনের নেতা বলেন, দেশের স্বার্থে প্রশ্ন তোলায় তাদের লাঠিয়াল বাহিনী সন্ত্রাসী তাণ্ডব চালায়। ছাত্রলীগ নিজের সহপাঠীকে খুন করতেও কুণ্ঠা বোধ করে না। অগণতান্ত্রিকভাবে ক্ষমতায় টিকে থাকতে তারা সর্বত্র ভয়ের রাজত্ব স্থাপন করতে চায়। তাই দেশের এই সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় ভয়কে জয় করে ছাত্র-তরুণদের ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধের মাধ্যমে বর্তমান সময়ের স্বৈরাচারী শাসনকে প্রতিহত করতে হবে।

ছাত্র ফেডারেশনের বিভাগীয় সমন্বয়ক ও জেলা শাখার আহ্বায়ক নবীন আহমেদের সভাপতিত্বে সমাবেশে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জাহিদ সুজন বলেন, লুটপাট-দুর্নীতি-ধর্ষণের এই চিত্র মুক্তিযুদ্ধের আকাঙ্খার বাংলাদেশের নয়। তাই ইতিহাসের ধারাবাহিকতায় বর্তমানের তরুণ ছাত্রসমাজকে সঙ্গে নিয়ে জনগণের আকাঙ্খার গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ বিনির্মাণে আমরা ছাত্র ফেডারেশন অঙ্গীকারবদ্ধ।

সভাপতির বক্তব্যে নবীন আহমেদ বলেন, এক আবরার, নুসরাতদের হত্যা করে গোটা ছাত্র সমাজের কণ্ঠ রোধ করা যায় না। বিচারহীনতার সংস্কৃতি ও দুর্নীতি-ধর্ষণ প্রতিরোধে স্কুল-কলেজ, পাড়া-মহল্লায় সবখানে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

জেলা শাখার সদস্য মো. জাবেরের সঞ্চালনায় সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- গণসংহতি আন্দোলন জেলা আহ্বায়ক দেওয়ান আবদুর রশিদ নীলু, ছাত্র ফেডারেশন জেলা শাখার অর্থ-সম্পাদক রাইদুল ইসলাম সাকিব, ঝালকাঠি জেলা সংগঠক মো. তুফান হোসেন, পিরোজপুর জেলা সংগঠক মো. মারুফ আহমেদ, সরকারি পলিটেকনিক শাখার সংগঠক সাকিবুল ইসলাম সাফিন প্রমুখ।

সমাবেশে দুর্নীতি ও ধর্ষণ বিরোধী সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সমবেত কণ্ঠে শপথবাক্য পাঠ করা হয়। পরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে একটি মিছিল বের হয়ে অশ্বিনীকুমার হল চত্বরে গিয়ে শেষ হয়।
বরিশাল নিউজ/স্টাফ রিপোর্টার