পদ্মা সেতু: মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ২

পদ্মা সেতুতে যান চলাচল শুরুর প্রথম দিনের আনন্দ আর উদযাপনের মধ্যে দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেলের দুইবন্ধু মারা গেলেন।

পুলিশ বলছে, রবিবার সন্ধ্যায় সেতুর ২৭ এবং ২৮ নম্বর পিয়ারের মাঝামাঝি এলাকায় মোটরসাইকেলে চড়ে মোবাইলে ভিডিও করার সময় দুর্ঘটনায় পড়েন ওই দুই তরুণ। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

রাত সাড়ে ১০টার দিকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

 মেডিকেল ফাঁড়ি পুলিশের পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, “দুইজনকেই মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল।”

নিহত দুজনেরই বাড়ি ঢাকার দোহার-নবাবগঞ্জ এলাকায়। তাদের মধ্যে ২৫ বছর বয়সী ফজলু কিছুদিন আগে দেশের বাইরে থেকে এসেছেন। আর সমবয়সী আলমগীর পেশায় মোটর মেকানিক।

পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি জিহাদুল কবির বলেন, “মোটরসাইকেল আরোহীদের একজন চলন্ত অবস্থায় ভিডিও করছিলেন। ঘটনাস্থলে পাওয়া একটি মোবাইলে থাকা ভিডিওতে একটি ট্রাক ওভারটেক করার দৃশ্য দেখা গেছে। এরপরই ভিডিওটি বন্ধ হয়ে যায়। মনে হচ্ছে তারা ট্রাকের ধাক্কায় ছিটকে পড়ে গিয়েছিলেন।”

শনিবার উদ্বোধনের পর রবিবার সকাল ৬টায় খুলে দেওয়া হয় পদ্মা সেতু। তখন থেকেই মোটরসাইকেলের ঢল নামে। সন্ধ্যার পরও শত শত মোটরসাইকেলকে সেতুর দুই প্রান্তের টোল প্লাজায় ভিড় করে থাকতে দেখা যায় পার হওয়ার অপেক্ষায়।

মোটর বাইকের আরোহীরা সেতুর উপর উঠে দল বেঁধে, আনন্দ-উল্লাস আর হৈ-হুল্লোড়ে মেতে ছিল দিনভর।

বরিশালনিউজ/ ডেস্ক নিউজ