বরিশালে করোনাভাইরাস গুজব

বরিশাল নিউজ।। বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বানীয়াশুরী গ্রামের বাদামতলা এলাকার বাসিন্দা জালাল সিকদার। তার ছেলে হেলাল সিকদার (২৬) চীনে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র । একবছর আগে হেলাল তিনি চীনে ডাক্তারি পড়ার জন্য যান।
 চীনে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়লে রবিবার ভোরে হেলাল সিকদার চীন থেকে নিজ বাড়িতে ফিরে আসেন। সাথে তার সুস্থতার ডাক্তারি সার্টিফিকেটও নিয়ে আসেন।

 বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পরামর্শে হেলাল পরিবারের সকল সদস্যদের থেকে ১৪দিন আলাদা থাকার ব্যবস্থা করেন। একপর্যায়ে তার বাবা, মা, বোনসহ অন্যান্য সদস্যরা বাড়ি থেকে অন্যত্র চলে যায়। বিষয়টি রবিবার সন্ধ্যার পরে এলাকায় জানাজানি হলে এলাকায় করোনাভাইরাসের গুজব ছড়িয়ে পরে।

 রবিবার রাত সাড়ে দশটার দিকে হেলাল সিকদার সাংবাদিকদের জানান, তার করোনাভাইরাস নেই। যেহেতু তিনি চীন থেকে এসেছেন তাই চিকিৎসকদের পরামর্শে বিশ্রাম নেওয়ার জন্য তিনি তার পরিবারের সদস্যদের অন্যত্র সরিয়ে দিয়েছেন। তিনি আরও জানান, চীন থেকে নিজ খরচে ফেরার পথে চারটি স্থানে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষাসহ বিভিন্ন পরীক্ষা নিরিক্ষা ও স্ক্যান করা হয়েছে। এছাড়াও তাকে কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থায় স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ১৪ দিন রাখা হয়েছিলো। এতে তার শরীরে করোনাভাইরাসের কোন আলামত পাওয়া যায়নি। বাংলাদেশে পৌঁছার পরেও তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। এতেও তার শরীরে কোন করোনাভাইরাসের লক্ষন পাওয়া যায়নি। তার পরেও তাকে বিষশজ্ঞ চিকিৎসকেরা বিশ্রামের জন্য ১৪দিন পরিবারের সদস্যদের থেকে আলাদা থাকতে বলা হয়েছে।

 এ ব্যাপারে গৌরনদী মডেল থানার ওসি গোলাম ছরোয়ার বলেন, বিষয়টি রবিবার রাতে শোনার পরেই চিকিৎসকদের সাথে আলোচনা করে ঘটনাস্থলে পুলিশ সদস্যদের পাঠানো হয়েছে। তারা চীন ফেরত ওই ছাত্রের সাথে কথা বলে ও তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার সকল কাগজপত্র এনে চিকিৎসকদের দেখিয়ে নিশ্চিত হয়েছেন হেলাল সিকদারের শরীরের করোনাভাইরাসের কোন আলামত নেই। এখন তার সাথে তার মা রয়েছেন।
 বরিশাল নিউজ/স্টাফ রিপোর্টার