কেন ২০ সেকেন্ড হাত ধুতে হয়

বরিশাল নিউজ ডেস্ক।। করোনা ভাইরাস থেকে নিরাপদ থাকতে বিশেষজ্ঞগণ পরামর্শ দিচ্ছেন অন্তত ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে। কিন্তু কেন? চলুন জেনে নিই এর পিছনের বৈজ্ঞানিক কারণ। আর নিশ্চিত করি আমরা ও আমাদের পরিবারের সবাই সাবান দিয়ে অন্তত ২০ সেকেন্ড হাত ধুই।

ভাইরাসের বাইরের আবরণ প্রোটিন ও ফ্যাট দ্বারা তৈরি। করোনা ভাইরাসও এর ব্যতিক্রম নয়। আমরা কিছু তেল নিয়ে যদি পানিতে ঢেলে দিই তাহলে কী ঘটে? পানির উপরে তেল ভাসতে থাকে। অর্থাৎ তেলের অণুগুলো অক্ষত অবস্থায় পানি থেকে আলাদা থাকে। ঐ তেল-পানি মিশ্রিত দ্রবণে যদি আমরা একটু সাবান গুলিয়ে দিয়ে “অপেক্ষা করি” তাহলে কী হবে? তখন কিন্তু আলাদা করে তেলের অস্তিত্ব থাকবে না। সাবানের সাথে মিশে তেল তার নিজস্ব বৈশিষ্ট্য হারাবে।

এই একই ঘটনা ঘটে সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার সময়। আমরা যদি শুধু পানি দিয়ে হাত ধুই তাহলে প্রোটিন আর ফ্যাটের আবরণে তৈরি ভাইরাসগুলো অক্ষত অবস্থায় থেকে যাবে। আর যদি সাবান দিয়ে অন্তত ২০ সেকেন্ড হাত ধুই তাহলে সাবানের অণুগুলো ভাইরাসের দেহ আবরণের ফ্যাটকে ভেঙে দিবে। ফলে ঐ ভাইরাসটি ধ্বংস হয়ে যাবে। সাবানের অণুগুলো ভাইরাসের দেহ আবরণের ফ্যাটকে ভেঙে দিতে ২০ সেকেন্ড সময় নেয়। ২০ সেকেন্ডের কম সময় সাবান দিয়ে হাত ধুলে ভাইরাস কিন্তু থেকেই যাবে।

আর এই হাত ধোয়ার জন্য যে কোনো সাবানই কাজ করবে। anti bacteria বা অতি উন্নতমানের জীবাণুনাশক সাবানের প্রয়োজনীয়তা নাই। যে কোনো সাবানই ফ্যাটকে ভাঙতে পারে।

আসুন আমরা আতংকিত না হয়ে যত ভাবে পরিচ্ছন্ন থাকা যায় সে চেষ্টা করি। রাস্তা-ঘাটে কফ থুথু না ফেলি। সিড়ির রেলিং, বাসের হাতল ইত্যাদি যত কম সম্ভব স্পর্শ করি। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য আল্লাহর দেয়া প্রাকৃতিক খাবার খাই। প্রসেস ফুড না খাই। ভর পেট না খাই। ক্ষুধা না লাগলে না খাই। সপ্তাহে দুইটা রোজা রাখি। নিয়মিত শরীর চর্চা করি।

আল্লাহর রাসূল (সা) সকল প্রকার রোগের থেকে মুক্তি চেয়ে একটি দুআ আমাদের শিক্ষা দিয়েছেন। অন্যান্য সকল সতর্কতা ও চিকিৎসার পাশাপাশি চলুন নিচের দুআটি নিয়মিত পাঠ করি।

আনাস (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এই দুআ পড়তেন,

اللَّهُمَّ إِنِّي أَعُوذُ بِكَ مِنَ الْبَرَصِ وَالْجُنُونِ وَالْجُذَامِ وَمِنْ سَيِّئِ الأَسْقَامِ

‘আল্লা-হুম্মা ইন্নী আঊযু বিকা মিনাল বারাস্বি অলজুনূনি অলজুযা-মি অমিন সাইয়্যিইল আসক্বা-ম।’

অর্থাৎ, হে আল্লাহ! অবশ্যই আমি তোমার নিকট ধবল, উন্মাদ, কুষ্ঠরোগ এবং সকল প্রকার কঠিন ব্যাধি থেকে আশ্রয় প্রার্থনা করছি।

(আবূ দাউদ ১৫৫৪, নাসায়ী ৫৪৯৩, আহমাদ ১২৫৯২)

বরিশাল নিউজ/ডেস্ক