বেড়িবাঁধ ও বনাঞ্চল উজার, গ্রেপ্তার-৫


 

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) নিউজ।। পটুয়াখালীর কলাপাড়ার পায়রা বন্দর থেকে মাত্র আধা কিলোমিটার উত্তরে বেড়িবাঁধের স্লোপ ও ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল উজার করার অভিযোগে পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। কলাপাড়া থানা পুলিশের সহায়তায় বৃহস্পতিবার দুপুরে কলাপাড়া উপজেলা প্রশাসন, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও বনা বিভাগ যৌথ অভিযান চালিয়ে মাটি কাটার বেকু মেশিনসহ তাদের আটক করে।

পায়রা বন্দরের আধা কিলোমিটারের মধ্যে প্রকাশ্যে বেড়িবাঁধের স্লোপ কেটে ও বনাঞ্চল উজার করলেও প্রভাবশালীদের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়নি। এমনকি এ মাটি পায়রা বন্দরের সামনে স্তুপ করে রাখা হয়েছে। কিন্তু প্রভাবশালী ঠিকাদারের কারনে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়নি। স্থানীয়দের অভিযোগ এম এম বিল্ডার্স পায়রা বন্দরের পাশে কিছু জমি ক্রয় করলেও তাদের দখলে থাকা অধিকাংশ জমি সরকারি।

কলাপাড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তা মো. তরিকুল ইসলাম জানান, পায়রা বন্দর সংলগ্ন মূল বেড়িবাঁধের স্লোপ কেটে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এম এম বিল্ডার্সের প্রতিনিধিরা মাটি কাটছে এমন অভিযোগ পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে সত্যতা দেখতে পেয়ে তাৎক্ষণিক উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করেন। কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মুনিবুর রহমান ঘটনাস্থলে এসে বেড়িবাঁধ ও বনাঞ্চল ধ্বংস করার অভিযোগে তাদের গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেন।

কলাপাড়া উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. আব্দুল সালাম জানান, তাদের প্রায় পাঁচ একর ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল উজাড় করে ফেলেছে। কিছু কাটা গাছ পাশ্ববর্তী স্লইস ও রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার করলেও অধিকাংশ গাছ বিক্রি করে ফেলেছে। এ ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।

কলাপাড়া থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, পায়রা বন্দর সঙলগ্ন বেড়িবাঁধ ও বনাঞ্চল কাটার অভিযোগে পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী কুমার স্বস্তিক বাদী হয়ে থানায় মজিবুর রহমান, রফিকুল ইসলাম, রুহুল আমিন গাজী, মহিদুল হক ও আল আমিনকে আসাসী করে এজাহার দাখিল করেছেন।
বরিশাল নিউজ/কলাপাড়া