জলবায়ু ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীকে কিশোরীর পিটিশন

প্রধানমন্ত্রীর কাছে ১৫ বছর বয়সী স্কুল ছাত্রীর উত্থাপন করা পিটিশনে সমর্থন জানিয়েছেন দেশের ১১জন বিশিষ্ট ব্যক্তি এবং হাজারো মানুষ।  ২০১৯ সালের ১৩ই নভেম্বর জাতীয় সংসদে গৃহীত গ্রহজনিত জরুরি অবস্থা ঘোষণাপত্রটি বাস্তবায়ন এবং স্কুল শিক্ষাক্রমে জলবায়ু ও পরিবেশ শিক্ষা আরো বিস্তারিত আকারে অন্তর্ভুক্তির আহবান জানানো হয়েছে এই পিটিশনে।

 রাঙ্গামাটি সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী আরুবা ফারুক গত ১৯ মার্চ ২০২১ এই পিটিশন উত্থাপন করেন এবং  সোমবার ,২৫শে অক্টোবর  বিকেলে  রাঙ্গামাটির প্রধান ডাকঘরে প্রধানমন্ত্রী বরাবর এই পিটিশন প্রেরণ করেন।

এই পিটিশনে স্বাক্ষর করেছেন ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ এন্ড ডেভেলপমেন্ট এর পরিচালক অধ্যাপক সালেমুল হক,বিশিষ্ট পানিসম্পদ বিশেষজ্ঞ আইনুন নিশাত, বাংলাদেশ পরিবেশবাদী আইনবিদ সমিতির নির্বাহী প্রধান সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান, ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিসের প্রধান সমন্বয়ক সোহানুর রহমান, আইইউসিএন বাংলাদেশেরে জাতীয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক রাশেদ আল মাহমুদ তিতুমীর, অ্যাকশন এইড বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ কবির, সেভ দ্যা চিলড্রেন ইন বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর অনো ভ্যান ম্যানেন, প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর অরলা মারফি, তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ-বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) সভাপতি সুলতানা কামাল,বাংলাদেশ সেন্টার ফর অ্যাডভান্সড স্টাডিজের নির্বাহী পরিচালক ও জলবায়ু বিশেষজ্ঞ ড.আতিক রহমান ও ২১০০ এর অধিক মানুষ।

বরিশাল নিউজ/ ডেস্ক নিউজ