আসানি’র গতিপথ উড়িষ্যার দিকে

বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘আসানি উত্তর-পশ্চিমে ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ ও উড়িষ্যার দিকে এগোচ্ছে। আস্তে আস্তে এটি দুর্বল হচ্ছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

 বাংলাদেশের উপকূল থেকেও কমেছে এর দূরত্ব। তাতে আসানি নিয়ে আপাতত শঙ্কা কাটছে বাংলাদেশের।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. শাহীনুল ইসলাম সোমবার, ৯ মে সকালে বলেন, ‘চিন্তার কোন কারণ নেই। আজ পর্যন্ত এটা শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় হিসাবেই থাকবে। ওই রকম কোন পরিবর্তন হবে না। আজকের পর আসানি আস্তে আস্তে দুর্বল হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আপাতত বাংলাদেশ শঙ্কামুক্ত থাকবে। তবে বৃষ্টি, বাতাস থাকতে পারে। এখন পর্যন্ত হিসাব অনুযায়ী, এটি ভারতের উড়িষ্যার দিকে যাচ্ছে। তবে উপকূলে ধেয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে এর গতি কমে যাবে।’

এদিকে আবহাওয়া অধিদপ্তর পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ‘আসানি’র প্রভাবে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় বৃষ্টি বাড়বে। সবশেষ তথ্যানুযায়ী, এটি ঘণ্টায় ১৯ কিলোমিটার বেগে উত্তর-পশ্চিম দিকে এগোচ্ছিল।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ২ নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাদের গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।

ভারতের আবহাওয়া বিভাগ (মৌসুম ভবন) জানিয়েছে, আগামী ১০ মে ঘূর্ণিঝড়টি ভারতের উত্তর অন্ধ্র প্রদেশ ও উড়িষ্যা উপকূলের কাছাকাছি গিয়ে উত্তর ও উত্তর-পূর্বদিকে বাঁক নিতে পারে। ১২ মে’র দিকে এটি দুর্বল হয়ে উড়িষ্যা, পশ্চিমবঙ্গ হয়ে বাংলাদেশের খুলনা-সাতক্ষীরা-বরিশাল উপকূল অতিক্রম করতে পারে।

বরিশালনিউজ/ ডেস্ক নিউজ