ভ্যাক্সিন কখন পাবো ?

করোনাভ্যাক্সিন নেওয়ার আগ্রহ এখন সবার মধ্যে। তাই ভ্যাক্সিনের খোঁজ খবর  নিতে দেখা গেছে অনেককে। বরিশাল জেনারেল (সদর) হাসপাতালে  আজ রবিবার এমন অনেকের সাথে কথা হলো। তাদের কেউ প্রথম ডোজ কখন নেয়া যায় তার খবর নিচ্ছেন। আবার অনেকে এসেছেন বার্তা পেয়েও কেন ভ্যাক্সিনের দ্বিতীয় ডোজ নিতে পারছেন না তা জানতে। কেউ জানতে এসেছেন সবাই পাচ্ছে,আমি কেন পাচ্ছি না ?

এদের একজন বীরেন সমাদ্দর। হোটেল ব্যবসার পাশাপশি সংবাদপত্রের সাথেও জড়িত। সহকর্মীদের সাথে তিনি ১১ ফেব্রুয়ারি করোনাভ্যাক্সিনের প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন। কিন্তু দ্বিতীয় ডোজের এসএমএস পাননি তিনি। অথচ তার সহকর্মীদের অনেকে দ্বিতীয় ডোজ নিচ্ছেন।

ঢাকা থেকে আপিপা নাছরিন তার বোনকে একই খবরের জন্য ফোন দিচ্ছেন। তিনি যদিও মোবাইল এসএমএস পেয়েছেন। কিন্তু লকডাউনের কারণে বরিশাল আসতে পারছেন না। বরিশালে নিজের এলাকায় বেড়াতে এসে ১১ ফেব্রুয়ারি করোনাভ্যাক্সিনের প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন তিনি। পরে চাকুরীর কারনে ঢাকায় চলে যান। দ্বিতীয় ডোজ নিতে আবার বরিশাল আসার কথা ছিলো তার। সময় মতো ভ্যাক্সিন নেয়ার জন্য নাছরিন ঢাকাতেও ভ্যাক্সিন সেন্টারে যোগাযোগ করেছেন। কিন্তু তারা কোন সমাধান দিতে পারেননি। আপিপা নাছরিন এখন কী করবেন তা নিয়ে উৎকন্ঠিত তিনি।

এই ব্যাপারে সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা.মলয় কুমার এর সাথে কথা হয় এই প্রতিনিধির। তিনি বলেন, এই সমস্যায় পড়েছেন অনেকেই। এখনও তাদের কাছে এর কোন জবাব নেই। তিনি আরও জানালেন, বরিশালে বিভাগীয় কমিশনার ড. অমিতাভ সরকার বরিশালে করোনাভ্যাক্সিনের প্রথমডোজ নিয়েছিলেন। এরপর তিনি বদলী হয়ে ঢাকা যান। তিনিও পড়েছেন এই সমস্যায়। 

বরিশাল সিটি করপোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান ডা.মতিউর রহমানকে দেখা গেল সদর হাসপাতালে ভ্যাক্সিন কর্মসূচির তদারকি করতে। বিষয়টি সম্পর্কে কথা হয় তার সাথে। তিনি জানালেন, লকডাউনের কারণে অনেকেই নির্দিষ্ট সময়ে দ্বিতীয় ডোজ নিতে পারছেন না। এদের ব্যাপারে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাথে জুম মিটিংএ আলোচনা হবে। পরে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানানো হবে তাদের। তিনি সকলকে ধৈর্য্য ধরার অনুরোধ করে বলেন কেউ করোনাভ্যাক্সিন থেকে বাদ পড়বেন না।

এছাড়া প্রথম ডোজ নেয়ার পরে যারা এখনও দ্বিতীয় ডোজের এসএমএস পাননি তাদের জন্য রয়েছে আরেক খবর। সিটির ডাক্তার মতিউর রহমান জানান, ভির কমাতে ভ্যাক্সিনগ্রহনকারীদের সংখ্যা কমানো হয়েছে। এ কারনে সিরিয়াল অনুযায়ী অনেকে পিছনে পড়ে গেছেন।

বরিশাল নিউজ / স্টাফ রিপোর্টার