পদ্মার ঢেউ রে —–

আজ পদ্মা সেতুর উদ্বোধন। সারা দেশে সাজ সাজ রব। অংকের হিসাবে এই পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য ৬.১৫ কিলোমিটার। শুধু দৈর্ঘ্যের হিসাব করলে বিশ্বের ১২২তম সেতু। কিন্তু এই সেতুটির জন্যই পদ্মার ঢেউ ছড়িয়ে পড়েছে সারা দুনিয়ায়।

যাত্রা শুরু ১৯৯৭ সালে । তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাপান সফরে গিয়ে পদ্মা, এবং রুপসা নদীর উপর সেতু নির্মানের প্রস্তাব দেন জাপান সরকারের কাছে।

জাপান সম্মত হয় এবং রুপসা নদীতে নির্মান কাজ শুরু করে। আর খরস্রোতা পদ্মায় জরীপ শুরু করে। ২০০১ সালে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া পয়েন্টে সেতু নির্মানের স্থান দেখিয়ে সরকারের কাছে সমীক্ষা প্রতিবেদন জমা দেয় জাপান।

তাদের জরীপের ভিত্তিতে ২০০১ সালের ৪ জুলাই মুন্সীগঞ্জের মাওয়ায় পদ্মা সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

কিন্তু ২০০১ সালের নির্বাচনে ক্ষমতায় আসার পর বিএনপি-জামায়াত  জোট সরকার মাওয়া পয়েন্টে নির্মাণ কার্যক্রম বন্ধ করে দেয় এবং মানিকগঞ্জের আরিচা পয়েন্টে পদ্মা সেতুর জন্য আবারও জরিপ করার জন্য জাপান সরকারকে পরামর্শ দেয়।

দ্বিতীয়বার জরিপ করার পর জাপান মাওয়া পয়েন্টকে পদ্মা সেতু নির্মাণের স্থান হিসাবে উল্লেখ করে প্রতিবেদন জমা দেয়। কিন্তু কাজ হয়নি কোন।

২০০৯ সালে আবার ক্ষমতায় আসার পর আওয়ামী লীগ সরকার পদ্মা সেতু নির্মাণকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকারের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে।

সব চূড়ান্ত হবার পর বিশ্বব্যাংক আর তাদের এ দেশীয় দোসরদের কারনে সেতু নির্মান আবার পিছিয়ে যায়। তবে এবার বাংলাদেশ কারো উপর নির্ভর না করে নিজের টাকায় শুরু করে পদ্মা সেতু নির্মান।

২০১৪ থেকে ২০২২ সাল। সাহস, সততা আর সক্ষমতায় তৈরী পদ্মা সেতু সারা দেশকে যেন এক সূতায় বেধেছে। আর সেই সাথে বাংলাদেশকে যুক্ত করেছে বিশ্বের আরও অনেক দেশের সাথে।  

সেতু কর্তৃপক্ষের হিসাব অনুযায়ী এই প্রকল্পে ২০ টি দেশের মানুষ সরাসরি যুক্ত ছিল। ১০টি দেশ থেকে এসেছে বিপুল উপকরণ। আর ৫০টি দেশ থেকে এসেছে কোন না কোন উপকরণ।

সেতু নির্মানে চার হাজার প্রকৌশলী কাজ করেছেন। এদের মধ্যে পাঁচশ বাংলাদেশের প্রকৌশলী। বাকিরা এসেছেন বিভিন্ন দেশ থেকে।

বাংলাদেশ ছাড়াও চীন, ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জামার্নি, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস, সিঙ্গাপুর, জাপান, ডেনমার্ক, ইতালি, মালয়েশিয়া, কলম্বিয়া, ফিলিপাইন, তাইওয়ান, নেপাল ও দক্ষিণ আফ্রিকার মেধা যুক্ত হয়েছে এই পদ্মা সেতুতে।

বরিশালনিউজ/ ডেস্ক নিউজ