ইসলামী আন্দোলনের দাবি ‘নির্বাচনকালীন সরকার’

সব রাজনৈতিক দলের মতামত নিয়ে নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের দাবি জানিয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। বরিশালে বঙ্গবন্ধু উদ্যানে শুক্রবার অনুষ্ঠিত দলের বিভাগীয় সমাবেশে এই আহবান জানানো হয়।

সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন দলের মুহতারাম আমীর ও চরমোনাই পীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম। তিনি নির্বাচন প্রসঙ্গে আরও বলেন, জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে দলগুলোর সাথে আলোচনায় বসতে হবে। এছাড়া পরবর্তী সরকার ক্ষমতা গ্রহনের আগ পর্যন্ত সশস্ত্র  বাহিনী মোতায়েনসহ জাতীয় নিবাচনের দিন সশস্ত্রবাহিনীর হাতে বিচারিক ক্ষমতা প্রদান করতে হবে।

 নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার না করারও দাবি জানান তিনি।

ইসলামিক আদর্শে রাষ্ট্রগঠনে ১৫ দফা দাবিসহ পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচির অংশ হিসাবে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদ, মদের বিধিমালা বাতিল, পাঠ্যপুস্তকের সিলেবাসে ধর্মীয় শিক্ষা সংকোচন বন্ধ, দুর্নীতি ও সন্ত্রাস মুক্ত করার দাবিও ছিলো।  

ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মোহাম্মদ ফয়জুল করিম সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন।

নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে সমাবেশে বিভাগের ৬ জেলা থেকে নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

বরিশালনিউজ/ স্টাফ রিপোর্টার