বিনামূল্যের ঘর ৩০ হাজার টাকা!

বরিশাল নিউজ ॥ প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উদ্যোগ ‘জমি আছে ঘর নাই’ প্রকল্পের আওতায় এক গৃহহীনকে ঘর দেওয়ার জন্য ইউপি সদস্য ৩০ হাজার টাকা উৎকোচ নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের কমলাপুর গ্রামের এ ঘটনায় অভিযুক্ত ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
অভিযোগকারী লিটন হাওলাদার জানান, একটি ঘর পাওয়ার আশায় তিনি দীর্ঘদিন থেকে স্থানীয় ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দিনের কাছে ধর্ণা দিয়ে আসছেন। একপর্যায়ে ওই ইউপি সদস্য ঘর দেয়ার জন্য তার কাছে ৩০ হাজার টাকা দাবি করেন। উপায়ান্তর না পেয়ে দুই বছর আগে গ্রাম্য সুদিমহাজনদের কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা সুদে এনে ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দিনকে দেয়া হয়। এরপর গৃহহীন হিসেবে সম্প্রতি সময়ে তাকে একটি ঘর দেওয়া হয়। পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী বিনামূল্যে গৃহহীনদের ঘর উত্তোলণ করে দিচ্ছেন জানতে পেরে তিনি (লিটন) উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ অস্বীকার করে অভিযুক্ত ইউপি সদস্য গিয়াস উদ্দিন জানান, সাবেক এক ইউপি সদস্য তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করিয়েছেন। একপর্যায়ে তিনি (গিয়াস) সাংবাদিকদের ম্যানেজ করার প্রস্তাব দিয়েও ব্যর্থ হয়েছেন।
ইউপি সদস্যর বিরুদ্ধে ঘর দেয়ার নামে উৎকোচ গ্রহনের লিখিত অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাছরিন বলেন, অভিযোগের তদন্ত চলছে। তদন্তে উৎকোচ গ্রহণের বিষয়টি প্রমানিত হলে অভিযুক্তর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বরিশাল নিউজ/শামীম