ফান্ডের টাকায় পদক !

কলেজ ফান্ডের টাকায় নিজের নামে পদক গ্রহণ করে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পরেছেন গৌরনদী উপজেলার মাহিলাড়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ কেএম সরিফুল কামাল।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ৩০ অক্টোবর মাহিলাড়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ হিসাবে যোগদান করেন কেএম সরিফুল কামাল। ২০২০ সালে মহামারী করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পরলে গত দশ মাস পর্যন্ত কলেজ বন্ধ রয়েছে। করোনার কারনে কলেজ বন্ধ থাকলেও শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য কলেজ ফান্ডের ১০ হাজার টাকা খরচ করে তিনি (অধ্যক্ষ) শেরে-বাংলা স্মৃতি পদক নিজের নামের পাশে জুড়ে দিয়েছেন।

এ বিষয়ে অধ্যক্ষ কেএম সরিফুল কামাল জানান, সরকারের প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী বেতন নেয়ার বিধান রয়েছে। কিন্তু অন্য কোন চার্জ নেয়া হচ্ছেনা। কলেজের টাকায় পদকের বিষয়ে জানতে চাইলে উত্তেজিত হয়ে ওঠেন।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, কলেজের আয়ের টাকা ব্যাংকের কলেজ একাউন্ডে না রেখে ব্যক্তিগত একাউন্টে রেখে নিজের ইচ্ছেমতো খরচ করছেন অধ্যক্ষ সরিফুল কামাল।

সূত্রে আরও জানা গেছে, গত কয়েক মাস অঅগে স্নাতক (সম্মান) শিক্ষার্থীদের কোন সেমিনার না করেই সেমিনার ফি’র কথা বলে কলেজ ফান্ড থেকে ৫১ হাজার টাকা লোপাট করেছেন । এক মাস আগে ডিগ্রি তৃতীয় বর্ষের ৮৬জন ও অনার্স প্রথম বর্ষের ৪০জন শিক্ষার্থীর ফরম পূরনের কথা বলে বিনা রশিদে প্রত্যেক শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে পাঁচ’শ করে টাকা আদায় করে নিয়েছেন অধ্যক্ষ সরিফুল।

এছাড়া শিক্ষার্থীদের বেতন বাবদ আদায় করা হচ্ছে এক হাজার চার’শ চল্লিশ টাকা। অথচ উপবৃত্তির প্রথম শর্ত হচ্ছে যেসকল শিক্ষার্থী উপবৃত্তির সুবিধায় আসবেন তারা বেতন দিবে না। বেতনের টাকা দেয়া না হলে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির ফরম দেয়া হয়না বলে অভিওযাগ শিক্ষার্থীদের।

এ ব্যাপারে কলেজ গভর্নিং বডির এডহক কমিটির সভাপতি ও গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিপিন চন্দ্র বিশ্বাস জানান, কেউ অনিয়ম করলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বরিশাল নিউজ/ গৌরনদী