পদ্মা সেতু: “ইলিশ মাছের রাগের কথাও ভাবতে হয়েছে”

পানিসম্পদ ও জলবায়ূ পরিবর্তন বিশেষজ্ঞ ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত বলেছেন, পদ্মা সেতু নির্মানের সময় ইলিশ মাছ যেন রাগ করে চলে না যায় সে কথাও ভাবতে হয়েছে।  

কারণ হিসাবে তিনি বলেন, পদ্মা সেতুর তলা দিয়ে ইলিশ মাছ যাতায়াত করে। তারা আবার দুইশত ডেসিমালের ওপরে শব্দ হলে সেদিকে আগায় না। অর্থাৎ এই শব্দে ইলিশ মাছ উল্টো দিকে চলে যায়। আর তাই পদ্মা সেতু এলাকায় এসে ইলিশ মাছ যাতে রাগ না করে সেজন্য পাইলকে মাফলার দিয়ে মোড়ানো হয়েছিলো। হ্যামার দিয়ে পেটানোর সময় যাতে উচ্চ শব্দ  না হয়।

আইনুন নিশাত এই প্রসঙ্গে আরও জানান, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ছিলো পরিবেশের বিষয়ে যাতে কোন কম্প্রোমাইজ করা না হয়। সেইসাথে সার্বিক গুণগত মানের ক্ষেত্রেও কোন ধরণের ছাড় দেয়া যাবে না। আমরা যারা পদ্মা সেতুর সাথে জড়িত তারা চেষ্টা করেছি সেটা রক্ষা করতে।

 যার ধারবাহিকতায় ইলিশ মাছের সময় আমাদের বলা হয়েছে- যেখানে নদীর গভীরতা ৩০ ফুটের বেশি সেখানে মৎস্য মন্ত্রণালয় যদি বলে ইলিশ মাছ যাচ্ছে, তাহলে কাজ বন্ধ। আমরা তাই করেছি।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের রবিবার, ১৯ জুন অনুষ্ঠিত “পদ্মা সেতু এবং এর আর্থ-সামাজিক প্রভাব” শীর্ষক আন্তর্জাতিক কনফারেন্সে তিনি এসব কথা বলেন।বরিশালনিউজ/ স্টাফ রিপোর্টার