বরিশাল নিউজ ডেস্ক।। শিক্ষা মন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ এমপি বলেছেন,২০২০ সাল থেকে তামাকের ক্ষতিকর বিষয়সমূহ পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে, যেন শিক্ষার্থীরা নিজে সচেতন হওয়ার পাশাপাশি তাদের পরিবারও তামাকের ক্ষতির বিষয়ে সচেতন হতে পারে। তিনি আরও বলেন, স্কুল-কলেজের আশেপাশে পাঁচশত মিটারের মধ্যে তামাকপণ্য বিক্রয় বন্ধের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। আগামী বছরের পাঠ্যসূচি ইতিমধ্যে চূড়ান্ত হয়ে যাওয়ায় ২০২০ সালকে বেছে নেওয়া হয়েছে বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব:) আব্দুল মালিক বলেন, দেশে হৃদরোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে চলেছে এবং সবচেয়ে আশংকার বিষয় হচ্ছে ইদানিং ত্রিশ থেকে চল্লিশ বছর বয়সিদের মধ্যে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে।এর অন্যতম কারণ তামাক ব্যবহার বলে জানান তিনি।
অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, আত্মা’র সাংবাদিকবৃন্দ ধূমপান এবং তামাক নিয়ন্ত্রণে সচেতনতা সৃষ্টিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। তিনি আরও বলেন, তামাক ব্যবহারজনিত অসংক্রামক রোগ নির্মূলে স্বল্প বিনিয়োগেই অনেক বেশি আর্থিক ক্ষতি মোকবিলা সম্ভব। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন মর্তুজা হায়দার লিটন, কনভেনর, অ্যান্টি টোব্যাকো মিডিয়া এলায়েন্স- আত্মা ও চিফ ক্রাইম করস্পনডেন্ট, বিডিনিউজ২৪.কম।
অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন মো. খায়রুল আলম শেখ, কোঅর্ডিনেটর, জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেল (এনটিসিসি), স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়; মোজাফফর হোসেন পল্টু, সভাপতি, নাটাব; ডা. মাহফুজুর রহমান ভুঁঞা, গ্রান্টস ম্যানেজার, ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিডস (সিটিএফকে); এবিএম জুবায়ের, নির্বাহী পরিচালক, প্রজ্ঞা। অনুষ্ঠানে এ বছরের বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবসের প্রতিপাদ্য এবং এ সংক্রান্ত দিক নির্দেশনা তুলে ধরেন প্রজ্ঞা’র কো-অর্ডিনেটর মো: হাসান শাহরিয়ার। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন এটিএন বাংলার প্রধান প্রতিবেদক এবং অ্যান্টি টোব্যাকো মিডিয়া এলায়েন্স- আত্মা’র কো-কনভেনর নাদিরা কিরণ। বিশিষ্ট সাংবাদিক মোজাম্মেল হোসেন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।
বরিশাল নিউজ/সংবাদ বিজ্ঞপ্তি