প্রধানমন্ত্রী শেখহাসিনা আজ সোমবার, ৭ নভেম্বর একসাথে ১০০ সেতু উদ্বোধন করেছেন। গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে ২৫ জেলায় নির্মিত এসব সেতু উদ্বোধন করেন। এসব সেতু নির্মানে ব্যয় হয়েছে ৮৭৯ কোটি ৬২ লাখ টাকা ।

সেতুগুলোর মধ্যে চট্টগ্রাম বিভাগে ৪৫টি, সিলেট বিভাগে ১৭টি, বরিশাল বিভাগে ১৪টি, ময়মনসিংহে ৬টি, গোপালগঞ্জ, রাজশাহী ও রংপুরে ৫টি করে, ঢাকায় ২টি ও কুমিল্লায় একটি রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর ১০০ সেতু উদ্বোধনের সময় বরিশাল নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানে আয়োজিত ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠান

বরিশালের বিভাগে ১৪ সেতু

প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধন করা সেতুগুলোর মধ্যে বরিশাল বিভাগে ১৪টি সেতু রয়েছে। এগুলো হচ্ছে: বরিশাল জেলার সদর উপজেলার চন্দ্রমোহন সেতু, কলাতলা সেতু, তালুকদার হাট সেতু, সুন্দরকাঠী সেতু।

 ঝালকাঠি জেলার কচুয়া সেতু, কাঁঠালিয়া সেতু, তালগাছিয়া সেতু, সাতানী সেতু।

পটুয়াখালী জেলার চন্দ্রপাড়া সেতু, দশমিনা কলেজ সেতু,

পিরোজপুর জেলার কাটাপোল সেতু, মাহমুদকাঠী সেতু, সংগীতকাঠী সেতু ও শিয়ালকাঠী সেতু উদ্বোধন করা হয়।

এ সময় বরিশালপ্রান্তে উপস্থিত ছিলেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক শামীম, সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ, বিভাগীয় কমিশনার আমিন উল আহসান, বরিশাল জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার, রেঞ্জ ডিআইজি এসএম আক্তারুজ্জামান, পুলিশ কমিশনার সাইফুল ইসলাম, বরিশাল জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম জাহাঙ্গীর, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনুস প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরিশাল সদর উপজেলার সেতু ব্যবহারের মাধ্যমে সুবিধাভোগী একজন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের কথা শোনেন। এ সময় বরিশালের আঞ্চলিক গান পরিবেশন করেন জহুরুল হাসান সোহেল।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, দক্ষিণাঞ্চল অবহেলিত এলাকা ছিল। পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হয়েছে। এবার এতোগুলো সেতু একসঙ্গে উদ্বোধন করা একটি ঐতিহাসিক ঘটনা। এজন্য সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

বরিশালনিউজ/ ডেস্ক রিপোর্টার