নভেম্বর ৪, ২০২২

সমাবেশস্থলে বিএনপি নেতাকর্মীদের অগ্রিম অবস্থান

বরিশালে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ স্থানে দুই দিন আগে থেকেই নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছেন। সমাবেশে লোক সমাগম ঠেকাতে আওয়ামী লীগের ছত্রছায়ায় দুই দিনের পরিবহন পরিবহন ধর্মঘট ডাকায় বিএনপি এই কৌশল নেয়।  ৫ নভেম্বর এই গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

দূর-দূরান্ত থেকে আসা নেতাকর্মী ধর্মঘটের আগেই সমাবেশ  স্থলে অবস্থান নিয়ে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে আওয়ামী লীগকে। মাঠ দখলে রেখে সেখানেই হচ্ছে খাওয়া-ঘুমের ব্যবস্থা। আজ শুক্রবার বঙ্গবন্ধু উদ্যানে আদায় হয়েছে জুম্মার নামাজ।

‘সমাবেশ’ যেন বিএনপি-আওয়ামী লীগের পেস্ট্রিজ ইস্যুতে পরিনত করেছে। বিএনপি চায় লোকসমাগমের রেকর্ড গড়তে। আর আওয়ামী লীগ দেখাতে চায় বিএনপির জনপ্রিয়তা নেই।

বঙ্গবন্ধু উদ্যানে বিএনপির অবস্থান

সব ধরনের পরিবহন ধর্মঘট ডেকে বরিশালকে দেশের অন্যস্থানের সাথে প্রায় বি্চ্ছিন্ন করে ফেলা হয়েছে।  এতে  ক্ষুব্ধ সাপ্তাহিক ছুটির দিনেও বরিশাল আসতে না পারা স্বজনরা।

এসব ঘটনায় মিডিয়া কভারেজ চলছে কয়েকদিন ধরেই। সমাবেশ নিয়ে লোকজনের আগ্রহ তাই বেড়ে গেছে অনেক। সমাবেশের খোঁজ খবর নিচ্ছেন তারা।

এর আগের চারটি বিভাগীয় গণসমাবেশের আগে নানান প্রতিবন্ধকতায় পড়তে হয় বিএনপিকে। সেই প্রতিবন্ধকতার কথা মাথায় রেখে আগেভাগেই বরিশালে পৌঁছেছেন বিএনপির হাজার হাজার নেতাকর্মী। তৃণমূল নেতাকর্মীদের এই দৃঢ়তা ও সাহসিকতায় উজ্জীবিত হয়েছেন দলের কেন্দ্রীয় নেতারা।

 বিভাগীয় বাকি সমাবেশগুলোতে বাধা দিয়েও জনস্রোত ঠেকানো যাবে না বলে মনে করছেন শীর্ষ নেতৃত্ব।

ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, খুলনা ও রংপুরে সমাবেশ সম্পূর্ণ করেছে বিএনপি। এ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত সমাবেশে বাধার মুখে যে পরিমাণ নেতাকর্মীদের উপস্থিতি হয়েছে, বিএনপি নেতারা বলছেন, বরিশালের তার চেয়ে বেশি হবে। এরমধ্য দিয়ে বরিশালে বৃহত্তর রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করতে চায় বিএনপি।

বিএনপি নেতাদের দাবি, বরিশাল বিভাগীয় গণসমাবেশে যাতে মানুষ আসতে না পারে সেজন্য ৪ ও ৫ নভেম্বর সড়ক পথের সব ধরনের গাড়ি বন্ধ রাখতে সরকারের নির্দেশে ধর্মঘট ঘোষণা করা হয়েছে। নেতাকর্মীরা যে সকল হোটেলে অবস্থান নিয়েছে সেখান থেকে বের করে দেওয়ার হচ্ছে। এমনকি বাড়ি বাড়ি পুলিশ তল্লাশি দিয়ে ভয় দেখাচ্ছেন বলেও বিএনপি নেতাদের অভিযোগ। তবে যে কোনো মূল্যে গণসমাবেশ সফলের প্রস্তুতি নিয়েছেন সংশ্লিষ্ট নেতারা। তারা বলছেন, এতকিছুর পরেও সমাবেশে জনতার ঢল নামবে।

বঙ্গবন্ধু উদ্যানে বিএনপির জুম্মার নামাজ

কাঠালিয়া উপজেলা বিএনপি’র নেতা জালালুর রহমান আকন বলেন, সবাই নেতাকর্মীদের নিয়ে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে মাঠে নামাজ আদায় করেছে। এটা দেখে ভালো লেগেছে।

বিএনপির বরিশাল বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস আক্তার জাহান শিরিন বলেছেন, আমরা ইনশাআল্লাহ সমাবেশ সফল করব।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, বিভিন্ন জেলা থেকে ইতোমধ্যে হাজার হাজার নেতাকর্মী বরিশালে চলে এসেছে। মাঠের মধ্যে রান্নাবান্না খাওয়া-দাওয়া মিছিল এভাবেই চলছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, ময়মনসিংহ, খুলনা ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমাবেশগুলোতে যেভাবে গাড়ি বন্ধ করে দিয়েছে বরিশালেও তার ব্যতিক্রম নয়। গাড়ি বন্ধ করার পরেও সমাবেশ তো আটকে থাকেনি। পূর্বের সমাবেশগুলো সকল বাধা-বিপত্তি মোকাবিলা করে সফল করেছি বরিশালেও সফল করব।

বরিশালনিউজ/ স্টাফ রিপোর্টার

Subscribe to the newsletter

Fames amet, amet elit nulla tellus, arcu.