শামীম আহমেদ,বরিশাল॥ বরিশালের আগৈলঝাড়া-পয়সারহাট-গোপালগঞ্জ মহাসড়কের সংস্কার কাজ শেষ হতে না হতেই পয়সারহাট ব্রীজের ঢালে বড় গর্তের সৃষ্টি হচ্ছে। রাতের অন্ধ্যকারে ঘটছে অহরহ দুর্ঘটনা। বৃষ্টি হলে গর্ত আরো বড় আকার ধারন করলে ঈদে লোকজনের যানবাহনে চলাচল বন্ধ হওয়ার উপক্রম হতে পারে। বরিশাল সওজ বিভাগ থেকে ঠিকাদারের সাথে কথা বলে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেছেন উপ-সহকারী প্রকৌশলী ।
সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৬ সালে গৌরনদী-আগৈলঝাড়া-গোপালগঞ্জ সড়কটি মহাসড়কের উন্নিত করা হয়। চারদলীয় জোট সরকার ক্ষমতায় এলে রাজনৈতিক প্রকল্প দেখিয়ে তা বাতিল করে দেয়। মহাজোট সরকার পুনরায় ক্ষমতায় এসে ২০০৯ সালে বরিশালের গৌরনদী-আগৈলঝাড়া-পয়সারহাট মহাসড়ক নির্মান কাজ শুরু করে ২০১৪ সালে কাজ শেষ করে। বরিশাল অংশের ১৬ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের জন্য ২০১৮ সালের ২৩ কোটি টাকা ব্যয়ে টেন্ডার আহবান করেন বরিশাল সড়ক ও জনপথ বিভাগ। টেন্ডারে বরিশালের ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান এম খান গ্র্বপ নামে প্রতিষ্ঠান কাজটি পায়। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান দুই মাস অঅগে কাজ শুরু করে। বাইপাস সড়ক বাদে সব কাজ শেষ করে ঠিকাদার। কিন্তু পয়সারহাট খালের উপর ব্রীজের ঢালের ছোট গর্ত ভরাট করে ঠিকাদার কোন রকমে কাজ শেষ করে। কাজ শেষের কয়েকদিন পরে ঢালে বড় ধরনের গর্তের সৃষ্টি হয়। বৃষ্টি হওয়ায় গর্ত আরো বড় আকার ধারন করছে। গর্তের স্থানে স্থানীয়রা কাঠ দিয়ে কোন রকমে নিশানা দিয়ে রেখেছে। এ ব্যাপারে সওজ উপ-সহকারী প্রকৌশলী এম এ হানিফ বলেন, গর্তের কথা শুনেছি। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
বরিশাল নিউজ/শামীম