দার্শনিক আরজ আলীর জন্মভিটায় তারই নামে স্মৃতি জাদুঘর নির্মান করা হয়েছে। বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার এসএম রুহুল আমিন শনিবার দুপুরে এই জাদুঘরের উদ্বোধন করেন। জনবিজ্ঞান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে, অপসোনিন ফার্মাসিউটিকেলসের আর্থিক সহযোগিতায় এ জাদুঘর নির্মাণ করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে দর্শনিক আরজ আলীর স্মৃতি উত্তর প্রজন্মের কাছে ছড়িয়ে দিতে জাদুঘর ছাড়াও প্রায় ১ দশমিক ৯৭ একর জমির উপর অডিটোরিয়াম, লাইব্রেরি ও রেস্টহাউজসহ বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে আয়োজকদের।
আয়োজকরা জানান, দার্শনিক আরজ আলী মাতুব্বর কুসংস্কার ও ধর্মীয় কুপমুণ্ডকতার বিরুদ্ধে আজীবন লড়াই করেছেন। প্রচলিত কোনো স্কুলে না পড়েও শুধুমাত্র লাইব্রেরি থেকে জ্ঞান আহরণ করে তিনি রচনা করেন বেশ কিছু বই। নিজ গ্রামে গড়ে তোলেন আরজমঞ্জিল লাইব্রেরি। দীর্ঘদিন লাইব্রেরির তেমন উন্নয়ন ছিলনা। উপরন্তু তার নিজ জন্মভিটাই অস্তিত্ব সংকটে পড়ছিল ক্রমশ। অবশেষে সমস্যা থেকে উত্তরণে এ দার্শনিকের পুরোনো ভিটাবাড়ির আদলে গড়ে তোলেন দার্শনিক আরজ আলী মাতুব্বর স্মৃতি জাদুঘর।
প্রায় ৮ লাখ টাকা ব্যায়ে ৩১ বাই ২৩ ফুট বিশিষ্ট চৌচালা বিশিষ্ট জাদুঘর নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে প্রায় ৮০ ভাগ। এখানে আরজ আলীর বই ছাড়াও তার ব্যবহৃত জিনিসপত্র সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ কমিশনার এসএম রুহুল আমিন।
বরিশাল নিউজ/রাহাত