বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ সকল নেতৃবৃন্দের সাজার প্রতিবাদে ও মুক্তির দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসুচির অংশ হিসাবে বরিশালে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বরিশাল মহানগর, জেলা দক্ষিণ ও উত্তর জেলা বিএনপি ।
দলীয় কার্যালয়ে সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মহানগর বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার । কঠোর পুলিশ বেষ্টনীতে বিএনপির সমাবেশ শেষ হয় বেলা সাড়ে ১২টায়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার জিয়া, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি এবায়েদুল হক চাঁন ও সহসভাপতি আবুল হোসেন খান এবং উত্তর জেলা বিএনপির সভাপতি মেজবাউদ্দিন ফরহাদসহ অন্যান্যরা।

এ সময় মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, আদালতকে প্রভাবিত করে সরকার বিএনপি নেত্রীকে পরিকল্পিতভাবে সাজা দিয়ে নির্বাচনের বাইরে রাখতে চাচ্ছে। একদিকে সরকার এই বলছে এই রায় তারা দেয়নি, আদালত দিয়েছে। সরোয়ার প্রশ্ন রাখেন সরকার যদি সাজা না দিয়ে থাকে, তাহলে বেগম জিয়ার মুক্তির আন্দোলন দমানোর জন্য গণগ্রেফতার করছে কেন ? পুলিশের বেষ্টনীতে অব্যাহতভাবে বিএনপির দলীয় কর্মসূচী পালনে ক্ষুব্ধ সরোয়ার বর্তমান পুলিশ বাহিনীকে জনগণের নয়, আওয়ামী লীগের পুলিশ বলে অভিহিত করেন।

সমাবেশ শেষে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার সাংবাদিকদের বলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না বলে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বক্তব্য প্রমান করে তিনি (সিইসি) আওয়ামী লীগ সরকারের কতটা আজ্ঞাবহ।

বিএনপিতে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করার যোগ্য নেতা নেই বলে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য প্রতিহিংসা পরায়ন বলে উল্লেখ করে সরোয়ার বলেন, বিএনপিতে কাকে নেতা বানানো হবে সেটা একান্তই বিএনপির অভ্যন্তরীন বিষয়। এ বিষয়ে যখন প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য দেন, তখন বুঝতে হবে ডাল মে কুচ কালা হায় !
গণস্বাক্ষর সংগ্রহ কর্মসূচী , জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদান এবং বিক্ষোভ সমাবেশের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বে তিন দিনের কর্মসূচী পালন করলো বিএনপি।
বরিশাল নিউজ/রাহাত